প্রাভা হেলথের সেবাদান পুনরারম্ভ হচ্ছে

২৩/০৮/২০২১ থেকে প্রাভা হেলথ রোগীদের সেবাদান করতে পুনরায় তাদের সকল সার্ভিস আবারও শুরু করছে। ডিজিএইচএস গত ২ আগস্ট ২০২১ তারিখে তাদের কার্যক্রম সাময়িকভাবে স্থগিত করে।

২০১৭ সালে প্রতিষ্ঠার সময় থেকে প্রাভা হেলথ দায়িত্বের সাথে ডিজিএইচএস প্রদত্ত সকল গাইডলাইন ও পলিসি নির্দেশনা মেনে আসছে এবং আন্তর্জাতিক মানের ক্লিনিকাল কোয়ালিটি বজায় রেখেছে।

গত জুলাইতে একটি অনুসন্ধান এবং পরিদর্শনকালে কিছু মৌখিক এবং গৌণ বিষয় পরিবর্তনের সুপারিশ করা হয় যার কোনটিই প্রাভা এর ক্লিনিকাল গুণমান বা আমাদের প্রদত্ত চিকিৎসা সেবা সম্পর্কিত ছিল না। সুপারিশগুলির মধ্যে রয়েছে: প্রাভার ডোনিং এবং ডোফিংয়ের জন্য আলাদা জায়গা না থাকা, ভ্রমণকারীদের কোভিড পরীক্ষার জন্য ১৫০ টাকা নিবন্ধন ফি নেওয়া, এমবিবিএস ডাক্তার দ্বারা পরীক্ষা না করিয়ে কোভিড টেস্টে স্বাক্ষর করা এবং কোম্পানির ওয়েবসাইটে ডব্লিউএইচও কে পার্টনার হিসেবে উল্লেখ করা। এই সমস্ত সুপারিশগুলি অবিলম্বে ২ আগস্ট, ২০২১ তারিখের স্থগিতাদেশ নোটিশের আগেই যথাযথভাবে সমাধান করা হয়েছিল। এই পদক্ষেপগুলির মধ্যে রয়েছে ডোনিং এবং ডোফিং এরিয়া আলাদা করা, বিদেশগামী যাত্রীদের কোভিড পরীক্ষার জন্য ১৫০ টাকা রেজিস্ট্রেশন ফি নেওয়া বন্ধ করা, কোভিড রিপোর্টে সাইন অফ করার জন্য অতিরিক্ত একজন ভাইরোলজিস্ট (এমবিবিএস ডাক্তার) এর যোগদান এবং প্রাভার ওয়েবসাইটে “পার্টনার”-কে “কর্পোরেট ক্লায়েন্ট” হিসেবে সংশোধন করা।

“পরিস্থিতির সমাধান হওয়াতে আমরা অনেক আনন্দিত এই কারণে যে, দেশের এই পাবলিক হেলথ ক্রাইসিসের মাঝে আমরা আবারও সকল রোগীকে পুনরায় সেবা দিতে পারবো। আমাদের অনুশোচনা এই যে, গত ৩ সপ্তাহে ঢাকা ও দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে যেসকল কয়েক হাজার রোগী আমাদের সাথে যোগাযোগ করেছেন তাদের আমরা সেবা দিতে পারিনি।”, বললেন সিলভানা কিউ সিনহা, ফাউন্ডার, চেয়ার, এবং প্রাভা হেলথ এর সিইও।

প্রাভার চিফ মেডিকেল অফিসার ডা. সিমিন এম. আক্তার আরও যোগ করেন, “আমাদের সকল সেবাগ্রহীতাকে আমরা বলতে চাই, সহানুভূতিশীল ও মর্যাদাপূর্ণ বিশ্বমানের স্বাস্থ্য সেবা দেশের সকল মানুষের প্রাপ্য, এই বিশ্বাসে আমরা প্রাভা হেলথ প্রতিষ্ঠা করি। এই আকাঙ্ক্ষা ও বিশ্বাস বজায় রেখে আমরা ২০১৭ সাল থেকে লক্ষাধিক রোগীকে আমরা সেবা দিয়েছি এবং  ১,৫০,০০০ এরও বেশি সংখ্যক কোভিড-১৯ পরীক্ষা সম্পন্ন করেছি।”

প্রাভার ল্যাবরেটরি এবং টেস্টিং এর কোয়ালিটি সম্পর্কে প্রাভার সিনিয়র ল্যাবরেটরি ডিরেক্টর ডা. জাহিদ হুসেইন বলেন, “প্রাভার ল্যাব সরঞ্জাম অত্যাধুনিক, যেমনটা বিশ্বের সেরা ল্যাব গুলোতে দেখা যায় এবং কোভিড-১৯ পরীক্ষায় আমরা শুধুমাত্র বাংলাদেশ সরকার ও ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন উভয় অনুমোদিত রিএজেন্ট ব্যবহার করি।”

প্রাভা হেলথ গুরুত্ব দিয়ে বলতে চায় যে, বাংলাদেশ ও সারা বিশ্ব যে ক্ষয় ও দুর্দশা নিয়ে এই মহামারীর মধ্য দিয়ে যাচ্ছে, সেখানে তারা সততা ও স্বচ্ছতা বজায় রেখে সকল রোগীদের সেবা দিতে থাকবে।

English

Praava Health resumes serving Patients

On August 23, 2021, Praava Health has resumed all services immediately to serve its Patient base after being temporarily suspended by DGHS on August 2, 2021.   

Praava has at all times since our founding in 2017 been in compliance with the guidelines and policy directives issued by DGHS and international standards of clinical quality. 

During the course of an investigation and inspection in July, DGHS made minor oral recommendations to Praava, none of which were related to Praava’s clinical quality or the medical care we provide. The recommendations included: Praava not having separate areas for donning and doffing, charging BDT150 registration fee for traveler’s COVID testing, signing of COVID tests not being done by MBBS doctor, and listing WHO as a partner on the company’s website. All of these recommendations were immediately addressed well in advance of the August 2nd suspension notice. These steps included improving the separation of donning and doffing areas, halting charging BDT150 registration fee for travelers COVID testing, onboarding an additional Virologist (MBBS doctor) to sign off on COVID reports, and rewording “partners” to “corporate clients” on Praava’s website.

“We are so pleased that the situation is resolved so that we can resume serving our valued Patients during the greatest public health crisis of our lifetimes. We regret we were unable to provide care to the thousands of patients in Dhaka and across the country who have sought out our services over the last three weeks,” said Sylvana Q. Sinha, Founder, Chair, & CEO of Praava Health.

Dr. Simeen M. Akhtar, Praava’s Chief Medical Officer added, “We want to share with our Patient community that Praava was founded on the belief that all Bangladeshis deserve world-class quality healthcare services, grounded in dignity and care and empathy. Driven by this belief and aspiration, Praava Health has served hundreds of thousands of Patients in Bangladesh since our inception in 2017, and processed more than 1,50,000 COVID tests.” 

Speaking on the quality of Praava’s laboratory and testing, Dr. Zaheed Husain, Praava’s Senior Laboratory Director noted, “Our laboratory equipment is state-of-the-art and equivalent to what you would find in some of the best labs in the world, and we only use reagents recommended and approved for COVID-19 testing by the government of Bangladesh and the European Union.” 

Praava Health emphasizes the fact that in Bangladesh and across the globe there is immense loss and suffering during this pandemic and promises to continue to be as honest and transparent as possible in providing services to its Patient community.

Bangla

A Personal Message from Praava Founder & CEO

To Our Valued Patients,

I founded Praava Health on the belief that all Bangladeshis deserve world-class quality healthcare services, grounded in dignity, care, and empathy. Driven by this belief and aspiration, we have served over 2,00,000 Patients in Bangladesh since our inception in 2017.

Praava has at all times focused on compliance with the guidelines and policy directives issued by the Directorate General of Health Services (DGHS) and international standards of clinical quality. Within its authority, DGHS decided to temporarily close Praava on August 2. Throughout, Praava proactively is complying with all guidance provided by DGHS.

We hope to resolve the situation as soon as possible so that we can resume serving you, our valued Patients, during the greatest public health crisis of our lifetimes. 

We are rallied and genuinely touched by the Patients who have publicly expressed support of us on social media and have reached out to us through our call center and other channels in solidarity. As always, I would love to hear from you about any questions, feedback, or comments you may have. Feel free to write to me at ceo@praavahealth.com

It is our great honor and privilege to serve you. As we always say at Praava, you are more than just a Patient, you are family. Please stay safe and well during these trying times.

Wishing you good health,
Sylvana Q. Sinha
Founder, Chair, & CEO
Praava Health

We Are Stronger, Together

Praava Health was founded on the belief that every Bangladeshi deserves world-class quality healthcare, grounded in dignity, respect, and empathy.

We treat everyone equally without any bias or judgment and we strongly condemn discrimination of any kind towards our Patients or our team members. 

As a Patient, you have the right to receive considerate, compassionate, and respectful care, which recognizes your personal values, beliefs, spiritual and cultural practices. 

As a team member, you have the right to equal opportunity based on your talent and experience.

We treat our Patients, community, and team members, regardless of nationality, origin, culture, age, color, race, religion, gender, sexual orientation, familial status, or disabilities.

If as a Patient you or anyone else ever has to come across any unfortunate event, you can immediately call us at 10648 or email us at praavalistens@praavahealth.com. Our CEO and senior management team personally review your feedback and all such incidents are responded to. Here are all the ways in which you can reach out to us

Bullying, shaming, harassment, victimization, and unlawful discrimination of any kind towards any Patient or team member are taken very seriously by us. Such behavior will be treated as misconduct and appropriate measures will be taken.

Our unwavering commitment is to the service we provide to our community and the support of our team members.  

We hope together we can build a more inclusive community and provide the best healthcare experience for everyone. Indeed, we are stronger, together. 

In good health, 

Praava Health Team

করোনাভাইরাসের নতুন স্ট্রেইন এবং প্রাভাতে আপনার কোভিড টেস্ট

কোভিড মহামারী এখনও বাড়ছে, বিশ্বব্যাপী ভাইরাসটির অনেক ধরন পাওয়া গেছে, ভাইরাসটি নিয়ন্ত্রণের জন্য জনস্বাস্থ্য রক্ষার সব প্রচেষ্টাও দিন দিন জটিল হয়ে যাচ্ছে। যেহেতু বর্তমানে পুরো বাংলাদেশজুড়ে কোভিড সংক্রমণের হার আশংকাজনকভাবে বেড়ে গেছে, তাই প্রত্যেকের যার যার জায়গা থেকে সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা, মাস্ক পরা, প্রয়োজনে এবং নিরাপদ উপায়ে কোভিড-১৯ টেস্ট করা এবং সর্বাত্মক সতর্ক হওয়া খুব গুরুত্বপূর্ণ। 

বাংলাদেশে কোভিড-১৯ এর কোন কোন ভ্যারিয়ান্ট দেখা দিয়েছে?

বর্তমানে বিশ্বজুড়ে প্রকোপ চালানো এই ভাইরাসের একাধিক ধরন সম্পর্কে জানা গেছে। সিডিসির গ্লোবাল ভেরিয়েন্টের প্রতিবেদন অনুযায়ী, বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত একাধিক ধরন ভ্যারিয়ান্ট পাওয়া গেছে। ব্রিটিশ গবেষক এবং সরকারী চিকিৎসা কর্মকর্তারা বলছেন – করোনোভাইরাস ভ্যারিয়ান্ট আরও সংক্রমণযোগ্য – এটি সাধারণ ভাইরাসের তুলনায় ৫০% থেকে ৭০% বেশি সংক্রামক। 

কিছু কিছু ক্ষেত্রে নতুন ধরনের এই ভাইরাসের উপস্থিতি সনাক্তকরণ কঠিন হয়ে যায়। এছাড়া, এফডিএ আরও বলে যে, ভাইরাস জিনোমের জিনগত পরিবর্তনের দ্বারা একাধিক অঞ্চলে সনাক্তকৃত কোন জিনোমের উপর নির্ভর করে এমন টেস্টগুলোর ব্যবহার কেবলমাত্র এক অঞ্চলে সনাক্তকৃত ভাইরাস জিনোমের উপর নির্ভরশীল টেস্টগুলোর চেয়ে কম প্রভাবিত হতে পারে, অর্থাৎ যে ভাইরাস জিনোম অপেক্ষাকৃত কম অঞ্চলে পাওয়া যায়, সেই ভাইরাস জিনোম দ্বারা টেস্টগুলো কম প্রভাবিত হয়। প্রাভাতে করা আমাদের টেস্টে অনেকগুলো নির্দিষ্ট অঞ্চল অন্তর্ভুক্ত করা হয় এবং করোনাভাইরাসের ধরনগুলো শনাক্ত করতে এই টেস্ট যথেষ্ট কার্যকরী। তাছাড়াও, নতুন নতুন ভ্যারিয়ান্ট সৃষ্টি হওয়ার পাশাপাশি আমাদের টেস্টের নির্ভুলতা ধরে রাখতে আমরা অনবরত কাজ করে যাচ্ছি। আমরা এই ভাইরাসের র‍্যান্ডম জিনোম সিকোয়েন্স এনালাইসিস করছি যা থেকে দেখা যাচ্ছে যে, যেসকল স্যাম্পল পজিটিভ আসছে, তাতে নিশ্চিতভাবেই কোভিড-১৯ এর নির্দিষ্ট একটি ভ্যারিয়ান্ট রয়েছে।

সবার জন্য নির্ভুল টেস্টিং নিশ্চিত করা

প্রাভাতে আমরা আন্তর্জাতিক মানের ল্যাবরেটরি সার্ভিস নিয়ে গর্বিত, যে ল্যাব সার্ভিসের উপর আপনি নিশ্চিন্তে ভরসা করতে পারেন। এবং আমরা আমাদের কোভিড-১৯ টেস্টে সর্বোচ্চ নির্ভুলতার মান নিশ্চিত করতে পদক্ষেপ নিচ্ছি। কোভিড-১৯ মলিকিউলার টেস্টের জন্য আমরা ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন এবং সিডিসি দ্বারা বিশ্বব্যাপী প্রতিষ্ঠিত ও বাধ্যতামূলক সমস্ত গাইডলাইন এবং প্রোটোকল অনুসরণ করছি।

ফলস-নেগেটিভ ও ফলস-পজিটিভ রিপোর্ট সম্পর্কে বিস্তারিত

সব ধরনের টেস্টের ক্ষেত্রে আমরা সর্বোচ্চ আন্তর্জাতিক মান অনুসরণ করি, তবে ডায়াগনস্টিক টেস্টের প্রযুক্তি নিখুঁত নয় এবং এমনকি পৃথিবীর সেরা ল্যাবরেটরিতে করা কোন টেস্টও ১০০% সঠিক নিশ্চিত করা সম্ভব না। যেকোনো ডায়াগনস্টিক টেস্টের মতো এই টেস্টেও এমন সম্ভাবনা রয়েছে যে, কেউ ভাইরাস আক্রান্ত হলেও তার টেস্ট রেজাল্ট নেগেটিভ (ভুল নেগেটিভ) আসতে পারে, অথবা ভাইরাস আক্রান্ত না হওয়ার পরেও টেস্ট রেজাল্ট পজিটিভ (ভুল পজিটিভ) আসতে পারে। 

কোভিড-১৯ টেস্টগুলোর যথার্থতা সম্পর্কিত বিশ্বব্যাপী তথ্যের পর্যালোচনায় দেখা গেছে যে, ভুল নেগেটিভ রেজাল্টের হার ২% থেকে ২৯% এর মধ্যে রয়েছে। এছাড়া, পিসিআর টেস্টিংয়ের আন্তর্জাতিক গবেষণা (কোভিড-১৯ সনাক্তকরণের জন্য একই ধরণের পরীক্ষা) প্রায় ২% এর মতো গড় ভুল পজিটিভ হার নির্দেশ করে। একজন ব্যক্তির টেস্টের রেজাল্ট ভুল নেগেটিভ বা ভুল পজিটিভ হবে কিনা তা অনেক কিছুর উপর নির্ভর করে – যেমন সংক্রমণ এবং টেস্ট করার মধ্যের সময়ের উপর। উদাহরণস্বরূপ, যদি আপনি ভাইরাস সংক্রমণের পর খুব দ্রুত টেস্ট করান, তাহলে আপনার শরীরে টেস্ট করার মতো পর্যাপ্ত জ্বর বা লক্ষণ না ও থাকতে পারে, যার ফলে একদিন নেগেটিভ রেজাল্ট এবং পরবর্তীতে পজিটিভ রেজাল্ট হতে পারে। 

কোন সম্পূর্ণ সমাধান না থাকলেও, সিডিসি, ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন, এবং গ্লোবাল হেলথ কমিউনিটি দৃঢ়তার সাথে ডায়াগনস্টিক টেস্টের পরামর্শ দেয়, কারণ কোভিড-১৯ এর বিস্তার রোধে এটি এখনও একটি গুরুত্বপূর্ণ উপায়। আপনার ভাইরাস সম্পর্কিত লক্ষণগুলো দূর করতে বা ভাইরাসটিকে আরও ছড়িয়ে দেওয়া প্রতিরোধ করতে আপনার জন্য সবচেয়ে ভালো উপায় হল, প্রথমেই একটি ভিডিও কন্সালটেশনের মাধ্যমে আপনার ডাক্তারের সাথে কথা বলুন এবং যদি ডাক্তার পরামর্শ দেয় তাহলে এখনই টেস্ট করে ফেলুন।

মনে রাখবেন, প্রাভাতে আপনি শুধুমাত্র একজন রোগী নন, আপনি প্রাভা পরিবারের একজন সদস্য।

Meet Our Founder & CEO

Six years ago, my mother was hospitalized at one of Bangladesh’s top hospitals for a basic operation. We expected that the routine procedure would go smoothly, yet she suffered such dramatic complications that we nearly lost her. The most harrowing part of the experience was the doctor’s cavalier attitude. On my mother’s worst day, my sister and I desperately needed to understand why our mother was vomiting bile, but the doctor ignored our queries and walked out of the room. I distinctly remember chasing him up two flights of stairs to demand answers to our simple questions. His indifference to our mother’s suffering made us feel completely helpless. Eventually, our family had no choice but to take my mother to Bangkok, where she had a second surgery. A year later, she had to have a third surgery, all because of complications arising from the original operation.

Like most Bangladeshis, I could share dozens of other shocking incidents like this one, experienced by my own family in private health facilities.

I am an American by birth and Bangladeshi by blood. I studied international law and international development at top universities in the United States. My passion for development and impact was inspired by my visits to Bangladesh growing up and led me to a rewarding career in New York City and beyond. For the past 15 years, I have worked to ensure human rights and justice for individuals all over the world, through the private and public sectors, at international law firms and global organizations.

After my mother’s experience, I spent a great deal of time thinking about the tremendous need to revolutionize the health sector in Bangladesh. I wanted to be part of that revolution.

So, I moved to Bangladesh to found Praava Health.

Proper healthcare is our basic human right. Every patient deserves to be treated with care and respect. My own experience, and yours, compelled me to imagine health centers in Bangladesh where professionalism, expertise, and trust between physician and patient are not luxuries of the lucky few, but rights and realities for every citizen.

The Praava team is building a health system where patients come first – an outpatient network of health centers with family doctors as well as quality, reliable diagnostics. Because 80-90% of all health care needs can be addressed by a family doctor, Praava’s family doctors’ unit will be the first point of entry for our patients. Praava Health will feature a group practice of family physicians, including a gynecologist and a pediatrician, as well as a nutritionist and a physical therapist. To accommodate patients who may need to see specialists, Praava will have a floor of visiting specialists within our health center.

Proper care depends on accurate diagnosis. The diagnostics services we will offer in-house will include basic and advanced pathology, including Bangladesh’s first molecular cancer diagnostics lab in certain cancers like breast, cervical, and colon cancer; and basic and advanced imaging, including X-ray, ultra-sonogram, DXA (bone marrow density), CT, and MRI scans. Praava will maintain international standards for these facilities and plans to obtain international accreditation.

There is a fundamental power imbalance between the doctor – who has the medical knowledge to understand what is happening in the body – and the patient – who is suffering, but may not understand why. It is the responsibility of the doctor to alleviate that inequality by providing compassionate care. Every patient should be treated with dignity and feel confident that their health concerns will be taken seriously and addressed appropriately.

Consistently, we hear patients complain that the biggest problem with health care in Bangladesh is a lack of trust. In fact, patients actually feel better when their doctors spend time getting to know them. “Patient-centered care” actually improves patients’ clinical outcomes and satisfaction by enhancing the quality of the doctor-patient relationship, while at the same time decreasing overall health care costs and wastefulness of diagnostic testing, prescriptions, hospitalizations, and referrals. Patient-centered care is a holistic approach to health care. It goes beyond educating patients about their diagnosis and potential treatments by involving them in key decisions about their health, taking into account their personal circumstances and preferences. Patient-centered care requires open communication and consideration of patients’ cultural traditions, personal preferences and values, family situations, social circumstances, and lifestyles. It demands every doctor get to know every patient personally.

It is this notion of patient-centered care that Praava is bringing to Bangladesh. We aim to be your partner in health. There are many medical professionals in Bangladesh who share these values, and we are actively bringing some of them onto our team to help achieve our vision. (Please email us if you’d like to join us!)

When I cut the ribbon for our first Praava facility, I will be thinking of that day when I ran up two flights of stairs to ask a doctor a simple question. And I will be looking forward to a whole new kind of care for my family, and for yours – high quality, affordable services and diagnostics that bring trust, reliability, and accountability to our healthcare system.

Welcome to a new concept of healthcare in Bangladesh. I hope to see you soon at Praava’s first health center, launching in Dhaka in 2017.

https://youtu.be/2tKh708UEQw